এখানে আপনার পণ্য বা সেবার বিজ্ঞাপন দিন।

ঢাকা ২৩ জুন ২০২৪ রবিবার

ব্রেকিং

নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি: বাংলাদেশর সকল জেলায় জেলা প্রতিনিধি, উপজেলা প্রতিনিধি, বিশেষ প্রতিনিধি ও বিজ্ঞাপন প্রতিনিধি পদে জরুরী ভিত্তিতে সাংবাদিক নিয়োগ চলছে। আগ্রহী প্রার্থীগণ নিউজ সাইটের যোগাযোগ অংশে প্রদত্ত ঠিকানায় (ফোন, ইমেইল) যোগাযোগ করুন।

মোঃ আহাজ উদ্দীনঃ বিশেষ প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১২ আগস্ট ২০২১, ১৪:৪৩

আপডেট: ১২ আগস্ট ২০২১, ১৪:৪৩

৫২৬

শেয়ার:

সাতক্ষীরা ডিসি অফিস চত্বরে পঁচাধান নিয়ে কৃষকদের প্রতীকী অবস্থান

"সাতক্ষীরার কলারোয়া পৌরসভাধীন মুরারীকাটি , কুমারনল ও কাশিয়াডাঙা গ্রামেরর আড়াই হাজার বিঘা জমির জলাবদ্ধতা নিরসনের দাবিতে পঁচাধান নিয়ে প্রতীকী অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে ভুক্তভোগী প্রান্তিক চাষীরা।

News

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০ টা থেকে ঘণ্টাব্যাপি সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসকের কার্যালয় চত্বরে এ অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন তারা। অবস্থান কর্মসূচি চলাকালে বক্তব্য রাখেন, কলারোয়া পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম, মুরারীকাটি সেচ কমিটির সভাপতি আরিজুল ইসলাম, আব্দুর রাজ্জাক, নুর ইসলাম, রত্না খাতুন প্রমুখ।

 বক্তারা বলেন,বিগত ২১ বছর যাবত মুরারীকাটি বিল জলাবদ্ধতা থাকায় তাদের অনাহারে অর্ধহারে-অনাহারে দিন কাটাতে হয়। এ পরিস্থিতিতে তিন গ্রামের সমন্বয়ে ধান চাষের জন্য একটি সেচ কমিটি গঠন করা হয়। সেই কমিটির মাধ্যমে বিদ্যুতের শক্তিশালী মিটার ও পাম্প স্থাপন করে কয়েক লাখ টাকা ব্যয় করে পানি নিস্কাশন করে ধান চাষের উপযোগী করা হয়। চলতি মৌসুসে প্রায় দু’ হাজার কৃষক আড়াই হাজার বিঘা জমিতে ধান চাষ করে। ধান গাছে ফুলও ধরেছিল।

তারা আরো জানান, বিলটি দীর্ঘকাল জলাবদ্ধ থাকায় কলারোয়া উপজেলা চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম লাল্টু জবর দখল করে একটি মৎস্য ঘের করে। সেচের কারণে তার ঘেরের পানি শুকিয়ে যায়। সম্প্রতি বর্ষার কারণে পানি জমে ধানের ক্ষতি হতে পারে ভেবে উজানের একটি কালভার্টের মুখ আটকিয়ে দেওয়া হয় এবং পাশ্ববর্তী সরকারি চাঁন মলি­কের খাল দিয়ে পানি বেত্রবতী নদীতে নামানোর জন্য একটি শক্তিশালী পাম্পের ব্যবস্থা করা হয়। কিন্তু উপজেলা চেয়ারম্যান লাল্টু তার মাছের ঘেরে পানি ঢোকানোর জন্য গত ২৮ জুলাই খালের মুখ বন্ধ করে কালভাটের মুখটি খুলে দিলে আড়াই হাজার বিঘা জমির ধার পানিতে তলিয়ে যায়। ফলে সকল ধার পঁচে নষ্ট হয়ে গেছে। জলাবদ্ধতা নিরসনে তারা জেলা প্রশাসকের সরেজমিন ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও চাঁন মলি­কের খাল ও বেত্রাবতী নদী খননের দাবি জানান।পরে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের পক্ষ থেকে জেলা প্রশাসক মোঃ হুমায়ুন কবীর বরাবর এক স্মারকলিপি পেশ করা হয়।

কৃষকদের দাবির প্রেক্ষিতে সাতক্ষীরা অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক(রাজস্ব) মাহমুদুর রহমান কৃষকদের এ ধরনের ক্ষতিতে দু:খ প্রকাশ করে বলেন, বিষয়টি জেলা প্রশাসক মহোদয় অবগত হয়েছেন। তদন্ত কমিটি করে সরেজমিনে জলাবদ্ধ মুরারীকাটি বিলপরিদর্শন করে সুষ্ঠ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে তিনি ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের আশ্বস্ত করেন।"   


কৃষি ধান

মন্তব্য করুন-

বাংলাদেশর সকল জেলায় জেলা প্রতিনিধি, উপজেলা প্রতিনিধি, বিশেষ প্রতিনিধি ও বিজ্ঞাপন প্রতিনিধি পদে জরুরী ভিত্তিতে সাংবাদিক নিয়োগ চলছে। আগ্রহী প্রার্থীগণ নিন্মোক্ত ঠিকানায় যোগাযোগ করুন।

নাম: আহসান হাবিব সোহেল
মোবাইল: ০১৭১২২৩১৩৯০
ইমেইল: doinikvoreraloi@gmail.com